Space for Add

Header ADS

ব্যারিওন এর রহস্য


ব্যারিওন হলো মিশ্র অতি পারমাণবিক কনিকা। এটি তিনটি কোয়ার্ক এর মিশ্রণ থেকে তৈরী হয়। যে তিনটি কোয়ার্ক থেকে তৈরী হয় তাকে ট্রাইকোয়ার্ক বলে। এটি কিন্ত মেসন বা দুটি কোয়ার্ক থেকে আলাদা। তবে ব্যারিওন বা মেসন উভয়েই কোয়ার্ক ভিত্তিক হ্যাড্রন পরিবারের কণিকা। 
আর ব্যরিয়ন শব্দটি হল গ্রীক শব্দ। এর অর্থ হল ভারী। ব্যারিওন কিন্তু অন্যান্য অতিপারমাণবিক কণাগুলো থেকে কিছুটা ভারী। মহাবিশ্বের দৃশ্যমান বস্তুর বেশীরভাগেই ব্যারিওন অবস্থা পাওয়া যায়। ব্যারিওন মূলত প্রোটন কিংবা নিউট্রন সমন্বয়ে গঠিত। আর ল্যাপ্টন মূলত ইলেকট্রোন দিয়ে তৈরী। 

মজার বিষয় হল প্রত্যেক ব্যারিওনের এন্টিপারটিকেল বা এন্টব্যারিওন বিদ্যমান। মনে কর প্রোটনের তিনটি কোয়ার্ক দুটি আপ কোয়ার্ক ও একটি ডাউন কোয়ার্ক নিয়ে একটি ব্যারিওন তৈরী হল। তাহলে অবশ্যই এন্টিব্যারিওন হিসেবে প্রোটনের দুটি এন্টিআপ কোয়ার্ক এবং একটি এন্টিডাউন কোয়ার্ক থাকবে। তবে ব্যারিওনের মধ্যে সবল নিউক্লিয় বল বিদ্যমান। এই বল ফার্মি-ডার্ক পরিসংখ্যান থেকে পাওয়া যায়। আরো গুরত্বপূর্ন ব্যপার হল ব্যারিওন পলির বর্জন নীতি মানে চলে। যা বোজম বা আরো কিছু কণিকার মধ্যে পাওয়া যায় না। ব্যারিওন প্রকৃতিতে গুরত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছে। এই মহাবিশ্বের সৃষ্টির সময় কিন্তু ব্যারিওন তৈরী হয়েছিল।

No comments

Feature post

দাঁত, চুল, নখ পর্যন্ত প্রোটিন(Protin) দিয়ে গঠিত?

প্রোটিন ( আমিষ )   বৃহত জৈব অণুর প্রকারবিশেষ। প্রোটিন মূলত উচ্চ ভর বিশিষ্ট নাইট্রোজেন যুক্ত জটিল যৌগ যা অ্যামিনো অ্যাসিডের পলিমার। জীন নির...

Theme images by michieldb. Powered by Blogger.