Space for Add

Header ADS

অক্ষাংশ ও দ্রাঘিমার আদ্যপান্ত

পৃথিবী ঘুরছে। কিন্তু কোনদিকে ঘুরছে তা বুঝব কিভাবে? আমরা সূর্যকে দেখলে বুঝি। আর সূর্যকে কেন্দ্র করে ২৩.৫ডিগ্রিকোণে হেলে ঘড়ির কাঁটার উল্টো দিকে ঘুরছে। গণিতে বা পদার্থে অক্ষরেখা নিয়ে অনেকে হইয়ত পরেছেন। এটি হল কোন বস্তু অবস্থান নির্ণয়ে ব্যবহার হয়ে থাকে। এরকম পৃথিবীরও অক্ষরেখা বিদ্যমান। এই অক্ষরেখার ডিগ্রিকে অক্ষাংশ(Latitude) বলে। অক্ষরেখার ডিগ্রি হল বিষুব রেখা থেকে উত্তর বা দক্ষিণে কোন স্থানের কৌণিক দুরত্ব। পৃথিবীর গোলাকৃতি কেন্দ্র থেকে উত্তর-দক্ষিণে কল্পিত রেখাগুলোকে অক্ষরেখা বা মেরুরেখা বলে। এই অক্ষের উপর প্রান্ত বিন্দুকে উত্তর মেরু আর নিচের প্রান্ত বিন্দুকে দক্ষিণ মেরু। দুই মেরু থেকে সমান দুরত্বে পৃথিবীকে পূর্ব-পশ্চিম বেষ্টনকারী এবং উত্তর-দক্ষিণকে বিভক্তকারী রেখা কে বিষুব রেখা(Equatorial Line) বলে।

 বিষুব রেখাকে নিরক্ষরেখা বা নিরক্ষবৃত্ত বা মাহাবৃত্ত অথবা গুরুবৃত্ত ও বলে থাকে। নিরক্ষরেখার মান 0 ডিগ্রি। পৃথিবীর কেন্দ্রে ৩৬০ডিগ্রি(বৃত্তের কেন্দ্র)। উত্তর মেরুর অক্ষাংশ ৯০ডিগ্রি এবং দক্ষিণ মেরুর অক্ষাংশও ৯০ডিগ্রি। আবার ২৩.৫ডিগ্রি উত্তর হল কর্কটক্রান্তি(Tropic of Cancer) রেখা এবং ২৩.৫ডিগ্রি দক্ষিণ হল মকরক্রান্তি(Tropic of Capricorn) রেখা। ৬৬.৫ডিগ্রি উত্তর অক্ষাংশকে সুমেরুবৃত্ত এবং ৬৬.৫ডিগ্রি দক্ষিণ অক্ষাংশকে কুমেরুবৃত্ত বলে। নিরক্ষরেখায় ধ্রুবতারার উন্নতি ০ডিগ্রি এবং উত্তর মেরুতে ঠিক মাথার উপরে ধ্রুবতারার উন্নতি ৯০ডিগ্রি। অর্থাৎ উত্তর গোলার্ধে কোন স্থানের অক্ষাংশ ধ্রুবতারার উন্নতির সমান।


গ্রীনিচের মূল মধ্যরেখা থেকে পূর্ব বা পশ্চিমে কোন স্থানের কৌণিক দুরত্বকে ঐস্থানের দ্রাঘিমাংশ (Longitude) বলে। মধ্যরেখা হল লন্ডন শহরের কাছে গ্রীনিচ মান মন্দিরের উপর দিয়ে উত্তর মেরু থেকে দক্ষিণ মেরু পর্যন্ত বিস্তৃত একটি রেখা। এই রেখা বরাবর গ্রীনিচের দ্রাঘিমা ০ ডিগ্রি। মূল মধ্যরেখা ৩৬০ডিগ্রিকে ১ডিগ্রি অন্তর অন্তর সমান দুইভাগে অর্থাৎ পূর্ব পশ্চিমে ১৮০ডিগ্রি করে ভাগ করেছে। দ্রাঘিমাংশ দ্বারা মূলত সময় নির্ণয় করা হয়। ১ডিগ্রি দ্রাঘিমাংশের জন্য সময় ব্যবধান ৪মিনিট।পৃথিবী গোল বলে ১৮০ডিগ্রি পশ্চিম এবং ১৮০ডিগ্রি পূর্ব একই মধ্যরেখায় পরে। আর কোন নির্দিষ্ট দ্রাঘিমা থেকে পূর্বের কোন দ্রাঘিমার সময় ধনাত্মক এবং পশ্চিমের কোন দ্রাঘিমার সময় ঋনাত্মক হয়। মূল মধ্যরেখা থেকে আন্তর্জাতিক তারিখ রেখার পার্থক্য ১৮০ডিগ্রি এবং সময়ের পার্থক্য ১২ঘন্টা।

1 comment:

  1. সুন্দর ব্যাখ্যার জন্য ধন্যবাদ

    ReplyDelete

Feature post

দাঁত, চুল, নখ পর্যন্ত প্রোটিন(Protin) দিয়ে গঠিত?

প্রোটিন ( আমিষ )   বৃহত জৈব অণুর প্রকারবিশেষ। প্রোটিন মূলত উচ্চ ভর বিশিষ্ট নাইট্রোজেন যুক্ত জটিল যৌগ যা অ্যামিনো অ্যাসিডের পলিমার। জীন নির...

Theme images by michieldb. Powered by Blogger.